স্কুলছাত্রী অপহরণ মামলায় যুবকের ১৪ বছরের কারাদন্ড


Published: 2017-07-17 18:37:15 BdST, Updated: 2017-11-19 01:21:36 BdST

শেরপুর লাইভ: শেরপুরে বিয়ের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করায় স্কুলছাত্রীকে অস্ত্রের মুখে অপহরনের মামলায় এক যুবকের ১৪ বছরের সশ্রম কারাদন্ডের রায় হয়েছে।


সোমবার বিকেলে শেরপুরের শিশু আদালতের বিচারক অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ মোহাম্মদ মোসলেহ উদ্দিন এ সাজার রায় ঘোষনা করেন। সাজাপ্রাপ্ত মাসুদ মিয়া (২২) শেরপুর শহরের চাপাতলি এলাকার আব্দুল মালেক ড্রাইভারের
ছেলে।


আদালতের রাষ্টপক্ষের বিশেষ পিপি অ্যাডভোকেট গোলাম কিবরিয়া বুলু রায়ের বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, আদালতে মাসুদ মিয়ার উপস্থিতিতেই এ সাজার রায় ঘোষনা করা হয়।


তিনি মামলার সংক্ষিপ্ত বিবরনীর উদ্ধৃতি দিয়ে জানান, শহরের চাপাতলি এলাকায় নালিতাবাড়ীর বাথুয়ারকান্দা গ্রামের এক ব্যক্তি তার ১৭ বছর বয়সী স্কুলপড়–য়া মেয়েকে নিয়ে বসবাস করতেন। চাপাতলি মহল্লার আব্দুল মালেক ড্রাইভারের ছেলে বখাটে মাসুদ মিয়া ওই স্কুলছাত্রীকে বিয়ের প্রস্তাব দিয়ে প্রায়ই উত্যক্ত করতো।


একপর্যায়ে মেয়ের বাবা বাধ্য হয়ে তিন বছর পর বিয়ে তুলে নেওয়ার সমঝোতায় অনার্স পড়ুয়া অপর একটি ছেলের সাথে মেয়েটির বিয়ে দেন। কিন্তু তাতেও দমে না গিয়ে বখাটে মাসুদ ২০১৬ সালের ২০ মার্চ অস্ত্রের মুখে ওই স্কুছাত্রীকে অপহরণ করে তুলে নিয়ে যায়।


এ ঘটনায় ওই স্কুলছাত্রীর বাবা বাদী হয়ে শিশু আদালতে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা দায়ের করেন। সদর থানার তদন্ত কর্মকর্তা উপ-পরিদর্শক (এসআই) কামরুল হাসান ঘটনার চার মাস পর ভিকটিমকে উদ্ধার করে অপহরণকারী মাসুদকে অবিযুক্ত করে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেন। আদালতে ৭ সাক্ষীর সাক্ষ্যগ্রহণ শেষে সোমবার মাসুদকে ১৪ বছরের সশ্রম কারাদন্ডের রায় দেন।

 

ঢাকা, ১৭ জুলাই (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//এমএইচ

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।