স্বামীকে আটকে রেখে শিক্ষিকাকে ধর্ষণ


Published: 2017-08-18 20:29:38 BdST, Updated: 2017-09-20 19:00:33 BdST

 

লাইভ প্রতিবেদক: স্বামীকে শ্রেণীকক্ষে আটকে রেখে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের এক শিক্ষিকাকে গণধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে।এ ঘটনায় ছয়জনকে আসামি করে মামলা দায়ের করা হয়েছে। 

বরগুনা জেলার বেতাগী উপজেলায় এই ঘটনা ঘটে। বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ১১টায় বেতাগী থানায় মামলাটি দায়ের করেছেন গণধর্ষণের শিকার ওই শিক্ষিকা। 

মামলায় অভিযুক্তরা হলেন, বেতাগীর হোসনাবাদ ইউনিয়নের কদমতলা গ্রামের মো. সুমন বিশ্বাস (৩৫), মো. রাসেল (২৪), মো. সুমন কাজী (৩০), মো. রবিউল (১৮), মো. হাসান (২৫) ও মো. জুয়েল (৩০)। 

শুক্রবার সকাল ১০টায় ঐ শিক্ষিকাকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য বরগুনা জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন বরগুনার পুলিশ সুপার বিজয় বসাক। 

এ বিষয়ে বেতাগী থানার ওসি মো. মামুন অর রশিদ জানান, ধর্ষণের শিকার শিক্ষিকা মামলা দায়ের করেছেন। তার ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য বরগুনা জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। আসামিদের  গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে। 

মামলা সূত্রে জানা যায়, বেতাগী উপজেলার একটি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ওই সহকারী শিক্ষিকা ও তার স্বামী ভারতের পূর্ব মেদেনীপুর জেলার নন্দী গ্রামের বাসিন্দা। বৃহস্পতিবার স্কুল ছুটির পর বিদ্যালয়ে বসে কথা বলছিলেন স্বামী-স্ত্রী দু’জন। তাদের কথোপকথোন দেখে অভিযুক্তরা স্কুলের মধ্যে প্রবেশ করতে চাইলে ওই শিক্ষিকা ভয়ে স্কুলের প্রধান দরজায় তালা লাগিয়ে দেন। এসময় অভিযুক্তরা তালা ভেঙ্গে ভেতরে ঢুকে তার স্বামীকে মারধর করে স্কুলের একটি শ্রেণীকক্ষে আটকে রাখে। অপর একটি কক্ষে ওই শিক্ষিকাকে পালাক্রমে ধর্ষণ করে।

 

ঢাকা, ১৮ আগস্ট (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//এমএইচ

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।