আপত্তিকর অবস্থায় ধরা খেলেন জবি শিক্ষার্থী


Published: 2017-07-14 22:57:08 BdST, Updated: 2017-11-19 01:16:54 BdST

জবি লাইভ: এক নারী সাংবাদিকের সাথে আপত্তিকর অবস্থায় ধরা খেলেন জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের (জবি) শিক্ষার্থী ও সাংবাদিক কাজী মোবারক হোসেন। শুক্রবার দুপুরে এক নারী সাংবাদিককে বাসায় ডেকে নেয় মোবারক। ব্যাচেলর বাসায় একজন নারীকে প্রবেশ করতে দেখে এলাকাবাসীর সন্দেহ হয়।

এ সময় তার বাসায় অভিযান চালিয়ে উপস্থিত জনতা হাতে-নাতে আপত্তিকর অবস্থায় ধরেন তাদেরকে। এ ঘটনা কাউকে খবর প্রকাশ না করার জন্য টাকার বিনিময়ে মিমাংসা করার চেষ্টা করেন এবং তাদের কাছে ক্ষমা চান মোবারক।


জানা যায়, কাজী মোবারক হোসেন জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের রসায়ন বিভাগের প্রথম ব্যাচের শিক্ষার্থী। তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রভাবশালী সাংবাদিক ছিলেন। বর্তমানে তিনি দেশের প্রথম সারির একটি অনলাইনে স্টাফ রির্পোটার হিসেবে কর্মরত আছেন। এছাড়া সম্প্রতি ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় নেতাদের ম্যানেজ করে ছাত্রলীগের সহ-সম্পাদকের পদ বাগিয়ে নিয়েছেন।


স্থানীয়রা জানান, পুরান ঢাকার ডালপট্টি মোড়ের একটি বাসা ভাড়া নিয়ে থাকেন মোবারকসহ কয়েকজন। এ বাসায় আনুমানিক ২২-২৩ বছর বয়সী একটি নারীকে নিয়ে আসেন মোবারক। এতে সন্দেহ হলে স্থানীয় লোকজন ওই বাসায় তাদেরকে আপত্তিকর অবস্থায় আটক করে। পরে এ খবর পেয়ে জবি ছাত্রলীগের কর্মীরা সেখানে যান। এ সময় সবার সামনে ক্ষমা চেয়ে ছাড়া পান ওই নারী ও মোবারক।


খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, ওই নারী সাংবাদিকের সঙ্গে অনেক দিন ধরে সম্পর্ক রয়েছে তারা। সম্পর্কের সুবাদে একটি অনলাইন পত্রিকার জবি প্রতিনিধি হিসেবে চাকরিও জুটিয়ে দিয়েছেন ওই নারীকে। এর সুযোগ নিয়ে তাকে নিজের বাসায় নিয়ে আসেন মোবারক। ওই নারী সাংবাদিকের মা ঢাকা মহানগর দক্ষিণ মহিলাদলের নেত্রী বলে জানা গেছে।


এ ঘটনায় পুরান ঢাকা এবং জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগ এবং সাধারণ শিক্ষার্থীদের মধ্যে ব্যাপক গুঞ্জন চলছে। ওই নারীর সাথে তাকে বিয়ে দিয়ে দেওয়া দাবি করছেন অনেকেই।

 

এ বিষয়ে ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সভাপতি সাইফুর রহমান সোহাগ বলেন, মোবারক হোসেন ছাত্রলীগের কেউ না। সে ছাত্রলীগের নাম ভাঙ্গিয়ে এসব অপকর্ম করে বেড়াচ্ছে।

 

ঢাকা, ১৪ জুলাই (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//এমএইচ

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।