আরেফিন যুগের অবসান, ঢাবির নয়া ভিসি আখতারুজ্জামান


Published: 2017-09-05 01:17:40 BdST, Updated: 2017-11-20 11:32:48 BdST

ঢাবি লাইভ : ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের দায়িত্ব পেয়েছেন প্রফেসর মো. আখতারুজ্জামান। এর আগে তিনি ওই বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রো-ভিসির দায়িত্বে ছিলেন।

সোমবার শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের এক আদেশে বলা হয়, ভিসি প্রফেসর আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিকের মেয়াদ পূর্ণ হওয়ায় বিশ্ববিদ্যালয়ের অ্যাকাডেমিক ও প্রশাসনিক কাজ সুষ্ঠুভাবে পরিচালনার স্বার্থে বিশ্ববিদ্যালয়ের আচার্য রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগের অধ্যাপক মো. আখতারুজ্জামানকে সাময়িকভাবে উপাচার্যের দায়িত্ব দিয়েছেন।

ভোট ছাড়াই ভিসি প্যানেল চূড়ান্ত করা নিয়ে সমালোচনা এবং কয়েকজন রেজিস্টার্ড গ্র্যাজুয়েটের করা মামলায় ওই প্যানেলের কার্যক্রম স্থগিত হয়ে যাওয়ার এক মাসের মাথায় সরকারের তরফ থেকে এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, বিধি অনুযায়ী প্রফেসর আখতারুজ্জামান সংশ্লিষ্ট সব সুযোগ-সুবিধা পাবেন। রাষ্ট্রপতি মনে করলে যেকোনো সময় তাকে দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি দিতে পারবেন।

ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগের চেয়ারম্যান ও কলা অনুষদে ডিনের দায়িত্ব পালন করা প্রফেসর আখতারুজ্জামানকে ২০১৬ সালের ২২ জুন প্রো-ভিসি হিসেবে নিয়োগ দেয় সরকার।

এর আগেই নির্বাচন ছাড়াই সাড়ে চার বছর দায়িত্ব পালনের পর ২০১৩ সালের ২৪ অগাস্ট সিনেটের বিশেষ অধিবেশনে ভিসি প্যানেল নির্বাচনের মাধ্যমে আরও চার বছরের জন্য নিয়োগ পান প্রফেসর আরেফিন সিদ্দিক। তার সেই মেয়াদ শেষ হয় গত ২৪ অগাস্ট।

তার মেয়াদ পূর্তির আগে আগে রেজিস্টার্ড গ্র্যাজুয়েট প্রতিনিধি নির্ধারণ বা নির্বাচন না করেই ২৯ জুলাই বিশ্ববিদ্যালয়ের সিনেট সভা ডাকা হলে তাতে আপত্তি জানিয়ে আদালতে রিট আবেদন করেন ১৫ জন রেজিস্টার্ড গ্র্যাজুয়েট। ওই আবেদনে হাই কোর্ট সিনেট সভা স্থগিত করে রুল দিলেও চেম্বার আদালতে হাই কোর্টের আদেশ আটকে যায়।

এরপর গত ২৯ জুলাই বিশ্ববিদ্যালয়ের নবাব নওয়াব আলী চৌধুরী ভবনে সিনেটের সভা বসে। বিএনপিপন্থি সমর্থকদের বর্জন, সরকার সমর্থকদের একাংশের আপত্তি এবং শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভের মধ্যে ওই সভায় ভোট ছাড়াই ভিসি প্যানেল চূড়ান্ত করা হয়।

বিকল্প কোনো প্রস্তাব সভায় না আসায় প্রফেসর আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক, কোষাধ্যক্ষ প্রফেসর কামাল উদ্দিন, বিজ্ঞান অনুষদের ডিন ও নীল দলের আহ্বায়ক আবদুল আজিজকে নিয়ে তিন সদস্যের প্যানেলই ‍সিনেটের অনুমোদন পায়।

নিয়ম অনুযায়ী ওই তিনজনের মধ্য থেকেই একজনকে পরবর্তী ভিসি হিসেবে নিয়োগ দেওয়ার কথা ছিল রাষ্ট্রপতির। কিন্তু সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগ গত ৩ অগাস্ট সিনেটে মনোনীত ওই প্যানেলের পরবর্তী কার্যক্রম স্থগিত করে দেয়।

রেজিস্টার্ড গ্র্যাজুয়েট প্রতিনিধি নির্ধারণ না করেই ভিসি প্যানেল নির্বাচনের জন্য সিনেটের বিশেষ সভা ডাকার বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে হাই কোর্ট যে রুল দিয়েছিল, তা চার সপ্তাহের মধ্যে নিষ্পত্তি করতে বলে আপিল বিভাগ।

সেই আদেশে বলা হয়, রুল নিষ্পত্তি না হওয়া পর্যন্ত প্রফেসর আরেফিন সিদ্দিকই ভিসি হিসেবে বিশ্ববিদ্যালয় পরিচালনার দায়িত্ব পালন করে যাবেন।

এ বিষয়ে আগামী ৩ অক্টোবর হাই কোর্টে শুনানির দিন নির্ধারিত রয়েছে। তার আগেই ১৯৭৩ সালের ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় আদেশের ১১ (২) ধারা অনুযায়ী রাষ্ট্রপতি প্যানেলের বাইরে থেকে প্রফেসর মো. আখতারুজ্জামানকে ঢাবির ভিসি পদে দায়িত্ব দিয়েছেন। এর মধ্য দিয়ে অবসান হল অারেফিন যুগের।


ঢাকা, ০৫ সেপ্টেম্বর (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//জেএন

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।