শ্রীলঙ্কার সঙ্গে মুক্তবাণিজ্য চুক্তি চলতি বছরেই


Published: 2017-07-14 19:02:34 BdST, Updated: 2017-09-20 13:25:44 BdST

 

লাইভ প্রতিবেদক: চলতি বছরের মধ্যেই বাংলাদেশ ও শ্রীলঙ্কা মুক্তবাণিজ্য চুক্তি (এফটিএ) করার বিষয়ে সম্মত হয়েছে। 

শ্রীলঙ্কার প্রেসিডেন্ট মাইথ্রিপালা সিরিসেনা ও বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার মধ্যে শুক্রবার আনুষ্ঠানিক আলোচনার পর দুই দেশ এই সিদ্ধান্তে উপনীত হয়েছে।

জানা গেছে, দুই দেশের কূটনীতিক ও সরকারি কর্মকর্তাদের ভিসাবিহীন চলাচলের বিষয়ে একটি চুক্তি স্বাক্ষর হয়েছে। বাংলাদেশের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল ও শ্রীলঙ্কার পররাষ্ট্রমন্ত্রী রবী করুনানায়েকে এ চুক্তিতে স্বাক্ষর করেন। 

দুই নেতার আনুষ্ঠানিক বৈঠক সম্পর্কে পররাষ্ট্রসচিব এম শহীদুল হক সাংবাদিকদের জানান, প্রেসিডেন্ট সিরিসেনা এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ২০১৭ সালের মধ্যে মুক্তবাণিজ্য চুক্তি (এফটিএ) করতে সর্বসম্মতিক্রমে সিদ্ধান্তে পৌঁছেছেন। 

পররাষ্ট্রসচিব বলেন, ‘যত দ্রুত সম্ভব মুক্তবাণিজ্য চুক্তি করতে উভয় দেশ আলোচনা ও পর্যবেক্ষণ সম্পন্ন করার জন্য সিদ্ধান্ত নিয়েছে। আর এটি হবে কোনো দেশের সঙ্গে বাংলাদেশের প্রথম এফটিএ চুক্তি।’ 

এর আগে উভয় নেতার উপস্থিতিতে ভাতৃপ্রতিম দুই দেশের মধ্যে পারস্পরিক সহযোগিতা বৃদ্ধির অংশ হিসেবে অর্থনীতি, কৃষি, জাহাজশিল্প, উচ্চশিক্ষা, তথ্য, প্রযুক্তি এবং মিডিয়া বিষয়ে একটি চুক্তি ও ১৩টি সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষর হয়। 

পররাষ্ট্রসচিব শহীদুল হক এবং প্রধানমন্ত্রীর প্রেস সচিব ইহসানুল করিম সাংবাদিকদের ব্রিফ করেন। এ সময় অন্যান্যের মধ্যে শ্রীলঙ্কায় বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত রিয়াজ হামিদুল্লাহ উপস্থিত ছিলেন। 

পররাষ্ট্রসচিব বলেন, ‘বাংলাদেশের সঙ্গে কারো মুক্তবাণিজ্য চুক্তি নেই। যদি ২০১৭ সালের মধ্যে এই এফটিএ সম্পন্ন হয়, তবে এটিই হবে কোনো দেশের সঙ্গে প্রথম মুক্তবাণিজ্য চুক্তি। এর মধ্য দিয়ে প্রথমবারের মতো বাংলাদেশ এফটিএর অভিজ্ঞতা লাভ করতে যাচ্ছে।’ 

মুক্তবাণিজ্য চুক্তি হলে ব্যবসা-বাণিজ্যে প্রতিবন্ধকতাগুলো দূর হবে বলে জানান পররাষ্ট্রসচিব শহীদুল হক। 

শ্রীলঙ্কার সঙ্গে মুক্তবাণিজ্য চুক্তি সম্পন্ন হলে বাংলাদেশ অন্য যেসব দেশের সঙ্গে এই চুক্তি করতে চাইছে, সেগুলো করতে সুবিধা হবে বলে জানান সচিব। 

শ্রীলঙ্কান প্রেসিডেন্টের সঙ্গে প্রধানমন্ত্রীর দ্বিপক্ষীয় বৈঠকে ব্যবসা-বাণিজ্যের বিষয়টি বেশি গুরুত্ব পায় জানিয়ে পররাষ্ট্রসচিব বলেন, ‘১৪টি দলিল সই হয়েছে। যার মধ্যে সাতটি বাণিজ্য ও ব্যবসাকেন্দ্রিক।’ 

এর আগে শুক্রবার সকাল ৯টা ৫৫ মিনিটে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে পৌঁছান সিরিসেনা, এ সময় তাকে স্বাগত জানান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ফুলের তোড়া দিয়ে বরণ করে নেয়া হয় শ্রীলঙ্কার প্রেসিডেন্টকে।

 

ঢাকা, ১৪ জুলাই (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//এমএইচ

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।