প্রশ্নপত্র ফাঁসের জন্য শিক্ষক-অভিভাবকদের দায়ী করলেন শিক্ষামন্ত্রী


Published: 2017-07-21 21:26:05 BdST, Updated: 2017-11-20 03:27:20 BdST

 

লাইভ প্রতিবেদক: শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ বলেছেন, পরীক্ষার প্রশ্নপত্র ফাঁসের জন্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক ও অভিভাবকরাই দায়ী। প্রতিযোগিতার বিশ্বে সন্তানদের টিকিয়ে রাখার উদ্দেশ্যে অনেক অভিভাবক টাকা দিয়ে প্রশ্ন কেনেন। আর অর্থের লোভে অনেক শিক্ষক প্রশ্নপত্র বিক্রি করেন। 

ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটি (ডিআরইউ) সদস্য সন্তানদের প্রাইমারি এডুকেশন কমপ্লিশন (পিইসি) ও জুনিয়র স্কুল সার্টিফিকেট (জেএসসি) পরীক্ষায় উর্ত্তীণ কৃতি শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনা এবং বৃত্তি প্রদান অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে শিক্ষামন্ত্রী এসব বলেন। 

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, আমরা এও দেখেছি, পরীক্ষার হলে শিক্ষকরা টাকার বিনিময়ে এমসিকিউ’র উত্তর বলে দিচ্ছেন। এর বিরুদ্ধে আমরা যথাযথ পদক্ষেপও গ্রহণ করছি। প্রশ্নপত্র ফাঁস অনেকাংশে বন্ধ করতে পেরেছি। 

ডিআরইউ সভাপতি সাখাওয়াত হোসেন বাদশার সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক মুরসালিন নোমানীর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বক্তৃতা করেন সংগঠনের সহ-সভাপতি ও অনুষ্ঠান উদযাপন কমিটির আহ্বায়ক আবু দারদা যোবায়ের, ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি ও অভিভাবক শাবান মাহমুদ, অভিভাবকদের পক্ষে সিনিয়র সাংবাদিক শাহ নেওয়াজ দুলাল প্রমুখ। 

নুরুল ইসলাম নাহিদ বলেন, নতুন প্রজন্মকে ভবিষ্যতে নেতৃত্ব দেয়ার মতো দক্ষ ও যোগ্য নাগরিক হিসেবে গড়ে তুলতে হবে। নৈতিক মূল্যবোধ সম্পন্ন মানুষ হিসেবে তাদেরকে গড়ে তুলতে হবে। 

শিক্ষা নীতিমালাকে প্রতিনিয়ত যুগপোযোগী করে গড়ে তোলার জন্য সংশোধন ও পরিবর্তন আনছি জানিয়ে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, শিক্ষকদের বেতন ভাতা বৃদ্ধি করেছি ও তাদের দেশের বাইরে থেকে প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করছি। 

তিনি আরো বলেন, সারাদেশে স্কুল, কলেজগুলোতে সাড়ে উনিশ হাজার নতুন ভবন নির্মাণ করা হবে। এর মধ্যে গ্রামাঞ্চলে ৪তলা, বিভাগীয় সদরে ৮তলা ও রাজধানীতে ১০তলা ভবন নির্মাণ করা হবে। 

এছাড়া বিনামূল্যে বই বিতরণ ও নারী শিক্ষায় উন্নতির ক্ষেত্রে বর্তমান সরকারের আমলে বাংলাদেশ ব্যাপক উন্নতি করেছে বলেও উল্লেখ করেন তিনি।

 

ঢাকা, ২১ জুলাই (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//এমএইচ

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।