শেরপুরে বন্যার্তদের ত্রানের জন্য হাহাকার


Published: 2017-08-19 17:13:59 BdST, Updated: 2017-09-22 17:50:12 BdST

 


শেরপুর লাইভ: শেরপুরে বন্যা পরিস্থিতির অপরিবর্তিত রয়েছে। শেরপুরের পুরাতন ব্রহ্মপুত্রসহ অন্যান্য নদ-নদীর পানি কমতে শুরু করেছে। তবে বন্যার্তদের মাঝে ত্রানের জন্য হাহাকার চলছে


সরেজমিনে ঘুরে দেখা গেছে, বন্যার্তরা দিন ব্যাপী নদীর তীরে এবং উচু স্থানে বা পানি মধ্যে দায়িয়ে থাকছে ত্রানের আশায়। কোন একটি নৌকা বা ট্রলার দেখলেই পানি ভেঙ্গে সাতরিয়ে ছুটে আসছে কেউ ত্রান নিয়ে আসছে কিনা তা দেখতে

এদিকে সদর উপজেলার বন্যা দুর্গত এলাকায় প্রতিদিনই আওয়ামীলীগ, বিএনপি জাতীয় পার্টির পক্ষে ত্রান তৎপরতা শুরু হওয়ায় বান ভাসিদের মাঝে কিছুটা স্বস্থি ফিরে এসেছে। তবে সরকারী ভাবে উল্লেখ্যযোগ্য ভাবে ত্রান বিতরণ করা হচ্ছে না বলে জানালেন বান ভাসিরা


শনিবার দুপুরে শেরপুর ফেরিঘাট পয়েন্টে বন্যার পানি গত ২৪ ঘণ্টার আরও সেন্টিমিটার পানি কমেছে বলে জানিয়েছে পানি উন্নয়ন বোর্ড


বন্যায় জেলার তিন উপজেলার ১৪টি ইউনিয়নের ৭৭টি গ্রাম প্লাবিত হয়েছে। এরমধ্যে শেরপুর সদরের ইউনিয়নের ৩০টি, শ্রীবরদীর ইউনিয়নের ১৫টি এবং নকলার ইউনিয়নের ১২ টি গ্রাম প্লাবিত হয়েছে। এতে প্রায় ৪০ হাজার লোক পানিবন্দি অবস্থায় রয়েছেন। এছ্ড়াা জেলার ২০ টি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় বন্ধ রয়েছে বলে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর সূত্র জানায়


জেলা কৃষি সম্প্রসারণ বিভাগের উপ পরিচালক মো. আশারাফ উদ্দিন জানায়, জেলায় বন্যায় পর্যন্ত সম্পূর্ন রূপে ২০২০ হেক্টর আংশিক ভাবে ১৫৭০ হেক্টর জমি রোপা আমন এবং প্রায় শতাদিক হেক্টর জমি সব্জীর ক্ষেত পানিতে নিমজ্জিত রয়েছে। তবে দুই-তিন দিনের মধ্যে পানি নেমে গেলে ফসলের তোন ক্ষতি হবে না বলে তিনি আশা প্রকাশ করছেন


সদর উপজেলার চরপক্ষিমারি ইউনিয়নের কুলুরচর-বেপারীপাড়া গ্রামের বন্যা পরিস্থিতির সবচেয়ে বেশী অবনতি ঘটেছে। ওই গ্রামের অর্ধশতাধিক ঘরবাড়ি পানিতে তলিয়ে রয়েছে। ঘরবাড়ি হারা অন্তত ৩০০ পরিবার স্থানীয় প্রাথমিক বিদ্যালয় বাঁধের উঁচু স্থানে আশ্রয় নিয়েছে


শেরপুর সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ হাবিবুর রহমান জানিয়েছে বন্যা দুর্গত এলাকার জন্য মেট্রিক টন খয়রাতি চাল বরাদ্দ দেয়া হয়েছে।

 

ঢাকা, ১৯ আগস্ট (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//এমএইচ

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।