‘৫ জানুয়ারির নির্বাচন ছিল গণতন্ত্র রক্ষার নির্বাচন’


Published: 2017-08-09 23:24:14 BdST, Updated: 2017-11-21 18:08:43 BdST

 

লাইভ প্রতিবেদক: মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আকম মোজাম্মেল হক বলেছেন, গণতন্ত্রকে রক্ষার জন্য ৫ জানুয়ারির নির্বাচন করা হয়েছে। কারণ ৫ জানুয়ারির ১৫ দিন পরে সংসদের মেয়াদ শেষ হত। তখন দেশে তৃতীয় শক্তির আবির্ভাব হত। 

বুধবার জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় (জবি) কেন্দ্রীয় মিলনায়তনে 'শোকাবহ আগস্ট' শীর্ষক এক আলোচনা ও স্মরণসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। 

তিনি বলেন, জামাত-বিএনপি গণতন্ত্রকে ভুলুন্ঠিত করার জন্য ৫ জানুয়ারির আগে পরে জ্বালাও পোড়াও করেছে। এখনও তারা জামায়াতের উপর ভর করে আগামী নির্বাচনকে প্রশ্নবিদ্ধ করার অপচেষ্টা করে যাচ্ছে। 

মন্ত্রী বলেন, বঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ভাষণে প্রমাণিত হয় তিনি বিশ্বসেরা কূটনীতিক। বঙ্গবন্ধু এমন একজন রাষ্ট্রনায়ক যিনি সকলকে স্বাধীনতার স্বপ্ন দেখেই ক্ষান্ত হননি, স্বাধীনতার স্বপ্নকে বাস্তবে রূপদান করেছেন। স্বাধীনতার পরবর্তী সময়ে বঙ্গবন্ধু যখন দেশকে স্বাভাবিক ও দেশের উন্নয়নের ধারা ত্বরান্বিত করছিলেন তখনই ঘাতকেরা বঙ্গবন্ধুকে সপরিবারে হত্যা করে। 

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে ভিসি প্রফেসর ড. মীজানুর রহমান বলেন, ১৫ আগস্ট শুধু রাষ্ট্রক্ষমতা পরিবর্তনের জন্য হয়নি। বঙ্গবন্ধু, বাংলাদশ ও বাঙালিত্ব-এই তিনটি জিনিসকে একইসঙ্গে হত্যা করা হয়েছিল। বাঙালির ইতিহাস মুছে ফেলে পূর্ব পাকিস্তান কায়েম করার জন্য এ ঘটনা ঘটানো হয়েছিল। 

এর আগে অনুষ্ঠানের শুরুতে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এবং তার পরিবারসহ নিহতদের স্মরণে দাঁড়িয় নীরবতা পালন করা হয়। 

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির সভাপতি প্রফেসর ড. প্রিয়ব্রত পালের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী নারায়ণ চন্দ্র চন্দ, ট্রেজারার প্রফেসর সেলিম ভূঁইয়া এবং বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী সদস্য অ্যাডভোকেট কাজী নজিবুল্লাহ হিরু।

 

ঢাকা, ০৯ আগস্ট (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//এমএইচ

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।