প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশেই বিচারপতি খায়রুলের এ প্রতিক্রিয়া


Published: 2017-08-11 21:03:33 BdST, Updated: 2017-08-17 21:35:31 BdST

 

লাইভ প্রতিবেদক: বিএনপির জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বলেন, প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশেই সাবেক প্রধান বিচারপতি ও আইন কমিশনের চেয়ারম্যান এ বি এম খায়রুল হক ষোড়শ সংশোধনীর আপিল বিভাগের রায়ের ‘সমালোচনা’ করেছেন। 

শুক্রবার দুপুরে নয়াপল্টন বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন। 

রিজভী বলেন, এ বি এম খায়রুল হক প্রধান বিচারপতি থাকাকালে ত্রয়োদশ সংশোধনীর মাধ্যমে নির্দলীয় তত্ত্বাবধায়ক সরকার ব্যবস্থা বিলুপ্ত ঘোষণা করে রায় দিয়েছিলেন; যার লিখিত রূপ তিনি দিয়েছিলেন অবসরে যাওয়ার পর। এটা করে সেদিন খায়রুল হক প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার মনোবাসনা পূর্ণ করেছিলেন। 

খায়রুল হকের উদ্দেশে বিএনপির জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব বলেন, ‘আপনি তত্ত্বাবধায়ক সরকার ব্যবস্থা বাতিল করে নির্বাচনহীন এক ব্যক্তির দুঃশাসন চালু রাখতে সহায়তা করে দেশের স্থিতিশীলতা ধ্বংস করেছেন।... দেশের গণতন্ত্রের জন্য সর্বোচ্চ খারাপ নজির স্থাপন করে গেছেন।... ত্রয়োদশ সংশোধনী বাতিলের রায় যখন আদালতে প্রকাশ্যে পড়ে শোনান তখন বলেছিলেন, আরো দুই মেয়াদের জন্য তত্ত্বাবধায়ক সরকার ব্যবস্থা রাখা যেতে পারে। অথচ এর ১৬ মাস পর যখন পূর্ণাঙ্গ রায় লিখিতভাবে প্রকাশ করলেন, তাতে এই কথাটাই বাদ দিয়ে জাতির সঙ্গে প্রতারণা করেছিলেন।’ 

‘তিনি (খায়রুল হক) চিফ জাস্টিস থাকা অবস্থায় একটি রায়ে বলেছিলেন, সর্বোচ্চ আদালতের বিচারক অবসরের পরে লাভজনক কোনো পদে চাকরি করতে পারবে না। তিনি কত বড় ভণ্ড হলে নিজের রায়ের কথা নিজেই ভঙ্গ করেছেন’, প্রশ্ন তোলেন রিজভী। 

বিচারপতিদের অভিশংসন-সংক্রান্ত ষোড়শ সংশোধনীর আপিল বিভাগের পূর্ণাঙ্গ রায়ের ব্যাপারে প্রতিক্রিয়া জানাতে গত বুধবার আইন কমিশনের সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য দেন এর প্রধান খায়রুল হক। এ সময় তিনি রায়ের সমালোচনা করে বলেন, ‘ষোড়শ সংশোধনীর রায় আগে থেকেই লিখে রাখা হয়েছে।’ ‘বিচার বিভাগ অপরিপক্ব’ এমন মন্তব্য করে তিনি বলেন, ‘সংবিধানের ষোড়শ সংশোধনী বাতিলের রায় অগণতান্ত্রিক ও পূর্বপরিকল্পিত। ষোড়শ সংশোধনীর রায়ে সংবিধানের অপব্যাখ্যা করা হয়েছে।’

 

ঢাকা, ১১ আগস্ট (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//এমএইচ

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।