এই ছাত্রীটি আর কখনও বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে আসবে না


Published: 2017-10-18 23:59:27 BdST, Updated: 2017-11-20 19:18:20 BdST

লাইভ প্রতিবেদক : গণ বিশ্ববিদ্যালয়ে কম্পিউটার বিজ্ঞান ও প্রকৌশল (সিএসই) বিভাগে পড়াশোনা তার। বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াশোনার পাশাপাশি সাংস্কৃতিক অঙ্গনেও তার সরব পদচারণা। খেলাধুলায়ও কম ছিলেন না। দিনগুলো ভালই কাটছিল। হঠাৎ ছন্দপতন জীবনের। দিল আফরোজ দিবার জীবনের গল্প বলছি। বন্ধু-বান্ধবীরা একদিন জানতে পারলেন দিবা এই পৃথিবী ছেড়ে চলে গেছেন। তবে তার যাওয়াটা স্বাভাবিক ছিল না। মৃত্যুটা হয়েছে রহস্যজনক। অভিযোগ উঠেছে তাকে নির্যাতনের পর আত্মহত্যা বলে প্রচার চালানো হচ্ছে।

বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াশোনা চলাকালে বিয়ে হয়েছিল তার। অার এটাই তার জীবনে কাল হয়েছে। পড়াশোনার জন্য শ্বশুরবাড়িতে একের পর এক নির্যাতন সহ্য করতে হয়েছে তাকে। গণবিশ্ববিদ্যালয়ে তৃতীয় বর্ষে উঠার পরেই তাকে নির্যাতনের কারণে চলে যেতে হয়েছে না ফেরার দেশে। ময়নাতদন্তের প্রাথমিক প্রতিবেদনের বরাতে পরিবারের সদস্যদের দাবি, দিবার বুকে প্রচণ্ড চাপ দেওয়া হয়েছিল। এতে তার পাঁজরের হাড় ভেঙে গেছে।

উল্লেখ্য, গত ১৪ অক্টোবর শনিবার দুপুরের দিকে দিবার স্বামী ফিরোজের বাবা ফোন করে মেয়ের বাবা দেলোয়ার হোসেনকে জানান, দিবা আত্মহত্যা করেছেন। খবর পেয়ে স্বজনরা হাসপাতালে গিয়ে কাউকে না পেয়ে ফিরোজের বাবার বাড়িতে গিয়ে লাশ পায়।

দিবার ছোট বোন সাবিবা তাবাসসুম জুঁই জানান, বিয়ের পর থেকে প্রায়ই স্বামী ফিরোজ তার বোনের ওপর অত্যাচার করত। বিয়ের কাবিননামায় প্রথমে কাবিন হিসেবে পাঁচ লাখ টাকা করা হলেও পরে তা পরিবর্তন করে এক লাখ টাকা করতে চাওয়ায় দিবা এতে অস্বীকৃতি জানান। এতে দিবার প্রতি অত্যাচারের মাত্রা বেড়ে যায়। তার লাশে মারধরের চিহ্ন ছিল।

সহপাঠীরা জানায়, দিবা মেধাবী ছাত্রী ছিলেন। তাকে তার স্বামীর বাড়ি থেকে পড়াশোনা করতে বাধা দিত। এমনকি মারধর করা হত। তৃতীয় বর্ষ চূড়ান্ত পরীক্ষার ফরম পূরণ করতে দেওয়া হয়নি।

গণবিশ্ববিদ্যালয়ের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক মীর মুর্ত্তজা আলী বাবু বলেন, দিবা পড়াশোনার পাশাপাশি খেলাধুলা ও সাংস্কৃতিক কর্মকাণ্ডে বেশ পারদর্শী ছিল। তাকে হারানো বিশ্ববিদ্যালয় পরিবারের জন্য খুবই কষ্টের। আমরা এ ঘটনায় মর্মাহত।

সাভার মডেল থানার ওসি মহসিনুল কাদির বলেন, ময়নাতদন্ত প্রতিবেদন হাতে পেলে নিশ্চিত হওয়া যাবে ঘটনাটি হত্যা নাকি আত্মহত্যা। বিষয়টি নিশ্চিত হয়ে পরবর্তী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।


ঢাকা, ১৮ অক্টোবর (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//সিএস

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।