ধনী-গরীবের প্রেম, বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রীর জন্য কারাগারে কলেজছাত্র!


Published: 2017-07-11 03:28:56 BdST, Updated: 2017-07-26 06:34:57 BdST

ঠাকুরগাঁও লাইভ : বড়লোকের মেয়ের সঙ্গে প্রেম করার ‘অপরাধে’ শ্রীঘরে যেতে হয়েছে কলেজ ছাত্রের। একেতো বড়লোকের মেয়ে তার ওপর আবার বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রী। সব মিলিয়ে কোনভাবেই ওই কলেজ ছাত্রকে মেনে নিতে পারছিলনা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রীর বাবা মা। প্রভাব খাটিয়ে ওই কলেজ ছাত্রকে জেলে পাঠিয়েছেন প্রভাবশালী প্রেমিকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রীর বাবা।

জানা গেছে, ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলা মথুরাপুর এলাকার আরিফ আসলাম প্রিন্স নামে এক ছাত্রের সঙ্গে একই এলাকার এক ছাত্রীর প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে।

প্রিন্স ঠাকুরগাঁও সরকারি বালক উচ্চ বিদ্যালয়ে পড়তেন। আর ওই ধনীর দুলালী ওই ছাত্রীটি সুগার মিল উচ্চ বিদ্যালয়ে পড়তেন। একই এলাকার হওয়ায় তাদের মধ্যে ভাল বন্ধুত্ব তৈরি হয়। পরে একই কলেজে পড়ার সুবাদে দুজনের মাঝে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে।

কলেজ জীবন শেষ করে প্রিন্স ফরিদপুর ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজে ভর্তি হয় আর মেয়েটি সৈয়দরপুর আর্মি প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হন। এর মাঝেই দু’জনের সম্পর্ক আরো গভীর হতে শুরু করে। নিয়মিত ফোনে কথা, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে আলোচনা ও বাড়িতে আসলেই দেখা সাক্ষাৎ হতো তাদের।

এক পর্যায়ে তাদের প্রেমের সম্পর্কের বিষয়টি জেনে যান বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রীর ব্যবসায়ী বাবা। শুরু হয় ছেলেটির উপর মানসিক নির্যাতন। পরে ওই ছাত্রীকেও কড়া নজরদারিতে রাখা হয়।

এবার ঈদে আরিফ আসলাম প্রিন্স ও ওই ছাত্রী বিশ্ববিদ্যালয় ছুটির সুবাদে পরিবারের সাথে ঈদ উদযাপন করতে আসেন ঠাকুরগাঁওয়ে। পরে মোবাইলে দুজনের যোগাযোগ শুরু হয়। হঠাৎ একদিন ওই ছাত্রীটি প্রিন্সের সাথে কথা বলার সময় তার বড় ভাই দেখে ফেলেন। আবারো কথা বলার কারণে চলে কয়েক দফা বকাবকি।

পরে ওই ছাত্রীর ভাই প্রিন্সকে শায়েস্তা করতে বাবার ক্ষমতা ব্যবহার করে ঠাকুরগাঁও থানায় একটি অপহরণের চেষ্টা ও যৌন নিপীড়নের অভিযোগ দায়ের করেন।

গত ২ জুলাই অভিযোগের প্রেক্ষিতে বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থী আরিফ আসলাম প্রিন্সকে পুলিশ মথুরাপুর নিজ বাড়ি থেকে আটক করে থানায় নিয়ে আসে। পরে আদালত প্রিন্সকে জেল হাজতে প্রেরণের নির্দেশ দেন।

আরিফ আসলাম প্রিন্সের বাবা আব্দুর রহমান জানান, আমরা গরিব। আমার ছেলে ধনীর পরিবারের মেয়ের সাথে প্রেম করতে গেছে। তাই মেয়ের বাবার ক্ষমতার দাপটে তাকে জেল হাজতে যেতে হয়েছে। আসলে ‘প্রেমতো ধনী গরিব বুঝে না’।

মামলার বাদী ওই ছাত্রীর বড় ভাই জানান, আরিফ আসলাম প্রিন্সের সাথে আমার বোনের কলেজ জীবন থেকে একটা ভাল বন্ধুত্ব ছিল। কিন্তু সে প্রায় সময় আমার বোনকে ফোনে বিরক্ত করতো। ঈদের ছুটিতে আসলে সে আমার বোনকে অপহরণের চেষ্টা করে। তাই থানায় মামলা দায়ের করেছি।

ঠাকুরগাঁও থানার এসআই কফিল উদ্দিন জানান, মামলার প্রেক্ষিতে আসামি গ্রেফতার করা হয়েছে। পরবর্তীতে তদন্ত সাপেক্ষে মামলার প্রতিবেদন দাখিল করা হবে।


ঢাকা, ১১ জুলাই (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//সিএস

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।