অধরাকে ছেড়ে প্রোটিয়াসের বাসিন্দা হবে ধ্রুব...


Published: 2017-05-28 03:44:49 BdST, Updated: 2017-09-26 00:57:03 BdST

জোজো শুভ : আকাশের অবস্থা ভালো না... শো শো করে একটা ইয়োলো ক্যাব এগিয়ে যাচ্ছে এয়ারপোর্টের দিকে...

ধ্রুব : আমি খুব বিরক্ত... এভাবে সব ব্যাপারে নাক গলানো আমার পছন্দ না। তুমি খুব সেলফিশ টাইপের একটা মেয়ে... শুধু নিজের ভালালাগাটাই তুমি বুঝো।।

অধরা : আমি তোমাকে ছাড়া থাকতে পারিনা... আমি শুধু তোমাকে নিয়ে থাকতে চেয়েছি ধ্রুব। তাই আজ আমি তোমার কাছে সেলফিশ...

ধ্রুব : সেটা কথা না।। তুমি জানো যে আজ আমি যে জন্য দেশের বাইরে যাচ্ছি সেটা আমার কত দিনের স্বপ্ন! আর তুমি বলছো ১ দিন পরে যেতে???

অধরা : তোমাকে ১ মাস দেখতে পাবো না ধ্রুব। তুমি বুঝবানা...
তুমি অনেক শক্ত একটা মানুষ.. আমার ফিলিংস তোমাকে বোঝানো সম্ভব না...

ধ্রুব : ন্যাকামী ছাড়ো। আমার এসব ভাল লাগেনা... শোন অধরা... এটা ২০৩০ সাল।। ঊনিশ শতাব্দীর প্রেমিক প্রেমিকাদের মতো ন্যাকামী করার ইচ্ছা
আমার নেই...

(অধরার চোখ ছলছল করছে...)

অধরা : আমি ন্যাকামী করি? আমি শুধু তোমাকে খুব ভালবেসেছিলাম ধ্রুব... আর কিছু না।।

ধ্রুব :আহ! অধরা আবার শুরু করলা! তোমার চোখে কি পানির ফোয়ারা লাগানো থাকে সব সময়??

ইয়োলো ক্যাবটি এয়ারপোর্টে এসে ভিড়লো... গুটি গুটি পায়ে দরজার সামনে এসে দাড়ালো কিংকর।। কিংকর একটি বিরল প্রজাতির রোবট।।

ওর দুই পা কিন্তু ডান পা টা একটু বড়। হাতের ৬ টা আঙুল...
মুখটা লম্বাটে... চোখগুলা লালচে...

ধ্রুব : অধরা... কান্নাকাটি করোনা... আমি এক মাস পরেই ফিরে আসবো।

(ছোখ দিয়ে টল টল করে পানি পড়ছে অধরার।)

অধরা : তুমি আমাকে কখনোই বুঝলানা ধ্রুব...আমার কিছু কথা বলার ছিল তোমাকে... অনেক দিন ধরে বলবো বলবো করে বলা হয়নি...

ধ্রুব : তুমি আবার শুরু করলা? এখন আমাকে বিদায় দাও... তোমার সব কথা এসে শুনবো...

কথাগুলো বলেই অধরার গালে আলতো করে হাত রাখলো ধ্রুব। সাথে সাথেই অধরা ধ্রুবকে জরিয়ে ধরে কেঁদে উঠলো।।

২.
উড়োজাহাজে কিংকর আর ধ্রুব পাশাপাশি বসেছে...

কিংকর : অধরার সাথে এরকম ব্যবহার না করলেও পারতে... মেয়েটা অনেক কেঁদেছে...

ধ্রুব : আমি ঠিক করেছি এসেই ওকে সারপ্রাইজ দিব। ওকে বিয়ে করবো!
বলতে বলতে হেসে দিলো ধ্রুব।।

কিংকর : তোমার সাথে আর কখনো দেখা হবে না ওর... তোমাকে আমরা কোন রিসার্চের কাজে নিচ্ছি না। ৪০০ কোটি পুরুষের মধ্যে তোমাকে নির্ধারণ করা হয়েছে... তোমার শারীরিক গঠন, তোমার উচ্চতা, তোমার গায়ের রঙ, গলার স্বর সব কিছু দেখেই তোমাকে পাঠানো হচ্ছে দূর গ্রহ প্রোটিয়াসে... তোমার হৃদপিন্ডের আকার ষড়ভুজাকৃতির যা ওই পরিবেশের সাথে মানিয়ে নেয়ার জন্য যথেষ্ট... ওখানে তোমার মাধ্যমেই শুরু হবে মানব ইতিহাসের নতুন অধ্যায়।

আমি ভবিষ্যৎ দেখতে পারি ধ্রুব... আমাকে সেভাবে তৈরি করা হয়েছে... অধরা তোমার জন্য আরো ৫ বছর অপেক্ষা করবে... ওর মা বাবা ওকে জোর করে একটা মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারের সাথে বিয়ে দিবে...

সুখে থাকবে ও... কিন্তু তোমাকে সারাজীবন ভালবাসবে... মনে রাখবে সে... মাঝে মাঝে খোঁজ নিতে তোমার বাবা মার কাছে যাবে...
তোমার বাবা মাকে মাসে মাসে লুকিয়ে লুকিয়ে টাকা পাঠাবে সে।

তারা জানবে তুমি এক্সিডেন্টে মারা গেছো...
অধরার দুইটা ফুটফুটে মেয়ে হবে... তুমি কি আমার কথাগুলো শুনছো?

এতোক্ষণ ঘোরের মধ্যে ছিল ধ্রুব... কি বলছে এই রোবটটা...

বুক ফেটে কান্না আসছে ওর...

১০ মিনিট আগে কি খারাপ ব্যবহারটাই না করে এলো মেয়েটার সাথে... হঠাৎ করে বমি শুরু করলো ধ্রুব। অনেকটা রক্তবমির মতো... অজ্ঞান হয়ে গেল।। ১০ মিনিট পর জ্ঞান ফিরে পেল... চিৎকার করতে লাগলো অধরার জন্য...

কিংকর : আর সুযোগ নেই ধ্রুব। তোমাকে যেতেই হবে। যদিও আমার ভেতর কোন অনুভূতি নেই। তোমরা মানুষজাত খুব অদ্ভুত। একটু আগে যে মেয়েটাকে এতো কথা শোনালে এখন তার জন্য কাঁদছো?

ধ্রুব : আমি অধরাকে একটা ফোন করবো। কিছু কথা বলতে চাই শেষবারের মতো...

কিংকর : এখন আর সম্ভব না ধ্রুব... তোমার সব ডাটা মুছে ফেলা হয়েছে... এখন থেকে তোমার নাম 'প্রোজেক্ট ০০০০১'

ঝরের গতিতে এগিয়ে যাচ্ছে উড়োজাহাজ।। মুম্বাই থেকে স্পেস শাটলে নিয়ে যাওয়া হবে প্রোটিয়াসে। প্রোটিয়াসের নতুন বাসিন্দা হবে ধ্রুব...

 

(সাইন্স ফিকশন)

জোজো শুভ
জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়

 

ঢাকা, ২৮ মে (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//জেএন

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।