লক্ষ্য যাদের বিদেশে উচ্চশিক্ষা নিতে যাওয়া...


Published: 2017-08-05 03:13:01 BdST, Updated: 2017-11-18 16:11:08 BdST

ফৌজিয়া ইসলাম রুমকি : বিদেশে উচ্চশিক্ষা নেয়ার ইচ্ছা আমাদের কমবেশি সবারই থাকে। কিন্তু কেন সেখানে পড়তে যাবেন সে সম্পর্কে অবগত নন অনেকেই। উচ্চশিক্ষা নিলে আপনার সুবিধা কি কি, তা হয়তো জানেন না অনেকেই। নতুন পরিবেশে, নতুন মানুষের সঙ্গে পরিচিত হওয়া, সংস্কৃতি সম্পর্কে জানা, নতুন ক্ষেত্র তৈরি করা, নতুন সম্পর্কে জড়ানো, নিজেকে মেলে ধরা ভাবতেই কেমন যেন অন্যরকম লাগে। এসব বিষয় নিয়েই আমাদের আজকের আয়োজন :

>>> একটা উদাহরণ দেয়া যেতে পারে। আমরা জানি হাঁস পানিতে ছেড়ে দিলে ডুবে ডুবে তলদেশ থেকে খাবার খায়। ওই হাঁসকে যদি গভীর সমুদ্রে ছেড়ে দেয়া হয় তাহলে সেটি নিশ্চই চিন্তা করবে সমুদ্রের কোন তলদেশ নেই। কারণ তার সেই তলদেশে যাওয়ার ক্ষমতাই নেই। আর এবিষয়ে তার জ্ঞান সীমিত। আমরাও ঠিক তেমনি। দেশের বাইরে না গেলে আমরা বুঝতেই পারবো না কত কিছু জানার আছে, বোঝার আছে। কারণ আমাদের জ্ঞান সীমিত। নতুন পরিবেশে না গেলে সেই জ্ঞান বাড়ানো সম্ভব নয়।

>>> বিদেশে পড়াশোনা করতে যাওয়ার প্রধান উদ্দেশ্য থাকে নিজেকে মেলে ধরা। মেধা যোগ্যতাকে কাজে লাগিয়ে উপযুক্ত জায়গায় নিজেকে উপস্থাপন করা। দেশে আপনি মেধা ও যোগ্যতা অনুযায়ী বিবেচিত নাও হতে পারেন। কিন্তু উন্নত বিশ্বে আপনি মেধা ও যোগ্যতা অনুযায়ীই বিবেচিত হবেন। আপনি কোথা থেকে আসলেন সেটা বিবেচ্য বিষয় নয়। আপনার মেধা ও যোগ্যতাই আসল। এর গুণেই আপনি নিজেকে উপযুক্ত জায়গায় নিয়ে যেতে পারবেন।

>>> বিদেশে উচ্চশিক্ষার আরো একটি উপকারিতা হল, আপনি নিজেকে যোগ্য করে তুলতে পারবেন। পৃথিবীটা অনেক বড় সেটা আপনি দেশ থেকে বের না হলে ভাবতেও পারবেন না। নিজের অর্জিত জ্ঞানকে আরো বৃদ্ধি করতে হলে অবশ্যই আপনাকে নতুন পরিবেশে নিয়োজিত করতে হবে।

>>> বিদেশে নানা সংস্কৃতির মানুষের সাথে পরিচিত হওয়ার সুযোগ রয়েছে। বিদেশের বিশ্ববিদ্যালয়ে নানা দেশ থেকে শিক্ষার্থীরা পড়াশোনা করতে আসেন। এর মধ্য দিয়ে নানা সংস্কৃতির মানুষের সঙ্গে পরিচিত হওয়ার সুযোগ পাওয়া যায়।

>>> বিদেশে পড়াশোনা করলে নিজেকে আত্মনির্ভরশীল করে গড়ে তোলা যায়। সেখানে আপনি স্বাধীন, তাই সহজে নিজেকে মেলে ধরা যায়।

>>> বিদেশে পড়াশোনা করতে যাওয়ার আরও একটি উদ্দেশ্য হল ভালো চাকরি পাওয়ার আশা। বিদেশ থেকে পড়াশোনা করে আসলে দেশে ভালো ভালো চাকরির অফার আসে। আবার বিদেশে থেকেও ভালো বেতনে চাকরি করার সুযোগ রয়েছে।

>>> বিদেশে পড়াশোনা করতে গেলে আপনার নেটওয়ার্ক বা ক্ষেত্র বাড়বে। নতুন নতুন মানুষের সঙ্গে পরিচয় হবে তাই যোগাযোগ রাখতে পারলে পরিচিত মানুষের একটি সমৃদ্ধ নেটওয়ার্ক গড়ে তোলা যায়। এটা আপনাকে চাকরি জীবনের সহায়ক হবে।

>>> বিদেশে পড়তে গেলে অনেক নতুন নতুন কাজের সাথে পরিচিত হওয়া যায় যেগুলো নিজের দেশে পাওয়া যায় না। অনেক কাজের মধ্য থেকে নিজের ক্যারিয়ার বেছে নেয়া সম্ভব হয়। দেশে থাকলে এই সুযোগ কম, কারণ দেশে ক্যারিয়ার নির্বাচনের ক্ষেত্রে এমন উন্মুক্ত সুযোগ পাওয়া কঠিন।

>>> দেশে চাকরি করার ইচ্ছা থাকলেও বিদেশে পড়ালেখা করার একটা সুবিধা আছে। বিদেশের কোন ভালো বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পড়ালেখা করলে তা আপনার জন্য প্লাস পয়েন্ট হিসেবে কাজ করে।

>>> পড়াশোনার পাশাপাশি দেশ বিদেশে ঘুরাঘুরি করলে অর্জিত জ্ঞান আরও সমৃদ্ধ হওয়ার সুযোগ রয়েছে। এতে আপনার মনও বেশ শান্তিতে থাকবে।

>>> বিদেশে পড়াশোনা আপনাকে নানা বিষয়ে দক্ষতা বৃদ্ধি করতে সহায়তা করবে। নানা মানুষের সাথে কাজ করলে আপনার দক্ষতার বৈচিত্র্যতা থাকবে।

সর্বোপরি বিদেশে পড়াশোনা না করলে বিশ্ব সম্পর্কে, আপনার জীবন সম্পর্কে অনেক কিছু জানার অপূর্ণ থেকে যাবে। আপনার স্বপ্ন, আপনার ক্যারিয়ার কত বর্ণাঢ্য হতে পারে তা বিদেশে না গেলে কিংবা সেখানে পড়াশোনা না করলে আপনার পক্ষে অনুধাবন করা সম্ভব নয়।

আপনাদের অান্তর্জাতিক প্রেক্ষাপটে স্বাগত রইলো।

 

ফৌজিয়া ইসলাম রুমকি
University of Toronto, কানাডা


ঢাকা, ০৫ আগস্ট (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//জেএন

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।